মুক্তিযুদ্ধে বাংলাদেশের বিজয়ের ৫০তম বার্ষিকী উদযাপন অনুষ্ঠানে যোগ দিতে তিন দিনের সফরে ঢাকায় এসেছেন ভারতের রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ। আজ বুধবার সকাল ১১টার দিকে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ভারতের রাষ্ট্রপ্রধানকে বহনকারী বিমান অবতরণ করে।

বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ঢাকার হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে রাষ্ট্রীয় অতিথি হিসেবে ভারতের রাষ্ট্রপতিকে স্বাগত জানান। ভারতের রাষ্ট্রপতিকে বিমানবন্দরে গার্ড অব অনার প্রদান করা হয়। 

জানা গেছে, ঢাকা সফরের প্রথম দিন ভারতের রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ সাভারে জাতীয় স্মৃতিসৌধে মহান মুক্তিযুদ্ধের শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ করবেন। সাভার থেকে ফিরে দুপুরে তিনি ধানমণ্ডি ৩২ নম্বরে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান স্মৃতি জাদুঘর পরিদর্শন করবেন এবং জাতির পিতার স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানাবেন।

আজ বিকেলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন সোনারগাঁও হোটেলে ভারতের রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করবেন। ভারতের রাষ্ট্রপতি সন্ধ্যায় বঙ্গভবনে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করবেন। এ সময় ভারতের রাষ্ট্রপতি বাংলাদেশের মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় ব্যবহূত একটি টি-৫৫ ট্যাংক এবং একটি মিগ-২৯ যুদ্ধবিমান বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘরে সংরক্ষণ ও প্রদর্শনের জন্য রাষ্ট্রপতিকে উপহার দেবেন। এরপর রাষ্ট্রপতি আয়োজিত নৈশ ভোজে অংশ নেবেন তিনি।

আগামীকাল বৃহস্পতিবার জাতীয় প্যারেড গ্রাউন্ডে ভারতের রাষ্ট্রপতি ‘গেস্ট অব অনার’ হিসেবে বাংলাদেশের বিজয় দিবসের সুবর্ণ জয়ন্তীর অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন। বিকেলে তিনি জাতীয় সংসদ ভবনের দক্ষিণ প্লাজায় ‘মহাবিজয়ের মহানায়ক’ অনুষ্ঠানে অংশ নেবেন। বাংলাদেশের বিজয়ের সুবর্ণ জয়ন্তীর ঐতিহাসিক মুহূর্তে জাতির পিতার প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ এবং রক্তস্নাত বিজয়ের আবেগ ও আনন্দ উদযাপনের জন্য ওই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, জাতীয় সংসদের স্পিকারসহ অন্য গণ্যমান্য ব্যক্তিরা উপস্থিত থাকবেন। 

সফরের শেষদিন শুক্রবার ভারতের রাষ্ট্রপতি ঢাকার রমনায় কালীমন্দিরের সম্প্রতি সংস্কার করা অংশের উদ্বোধন এবং মন্দির পরিদর্শন করবেন। তিনি মন্দিরসংশ্লিষ্ট কমিটির সদস্যদের সঙ্গে সংক্ষিপ্ত পরিসরে মতবিনিময় করবেন। শুক্রবার দুপুরে তিনি নয়াদিল্লির উদ্দেশে ঢাকা ছাড়বেন।