রুশ গোলায় আংশিক বিধ্বস্ত বাড়ির আগুন নেভাচ্ছে দমকল কর্মীরা।

ইউক্রেনে রাশিয়ার হামলার পর দুই পক্ষেই হতাহত বাড়ছে। এই লড়াইয়ে রাশিয়ার ৪৫০ সেনা নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। আর ইউক্রেনের বেসামরিক নাগরিকসহ ১৩৭ সেনা নিহত হয়েছে। এর বাইরে সামরিক-বেসামরিক কয়েক শ নাগরিক মানুষ আহত হয়েছে।

ইউক্রেনে আজ দ্বিতীয় দিনের মতো হামলা চালিয়ে যাচ্ছে রুশ বাহিনী। আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমগুলো বলছে, ইতিমধ্যে ইউক্রেনের রাজধানী কিয়েভে ঢুকে পড়েছে রুশ সেনারা। ইউক্রেন বাহিনীও প্রতিরোধের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। রাজধানী ও আশপাশে দুই পক্ষের মধ্যে তুমুল লড়াই চলছে।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির খবরে বলা হয়, ইউক্রেনে রুশ হামলা শুরু হওয়ার পর এখন পর্যন্ত ৪৫০ জন রুশ সেনা নিহত হয়েছেন। ব্রিটিশ প্রতিরক্ষামন্ত্রী বেন ওয়ালেসের বরাত দিয়ে সংবাদমাধ্যমটি এ তথ্য প্রকাশ করেছে।

বেন ওয়ালেস আজ শুক্রবার বলেন, রাশিয়া ইতিমধ্যে ৪৫০ সেনা হারিয়েছে। তারা শুরুতে ইউক্রেনের একটি বিমানবন্দর দখল করে নিয়েছিল। ইউক্রেন বাহিনীর প্রতিরোধের মুখে সেই বিমানবন্দরও হাতছাড়া হয়েছে।

তবে এ বিষয়ে রাশিয়ার পক্ষ থেকে তাৎক্ষণিকভাবে কোনো মন্তব্য করা হয়নি।

এদিকে ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভোলোদিমির জেলেনস্কি আজ ভিডিও বার্তায় জাতির উদ্দেশে দেওয়া ভাষণে বলেন, রুশ হামলার প্রথম দিন তাদের বেসামরিক নাগরিকসহ ১৩৭ সেনা নিহত হয়েছেন। তিনি যুদ্ধবিরতির জন্য রাশিয়ার প্রতি আহ্বান জানান।

এদিকে ইউক্রেনের পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়েছে, রাশিয়া তাদের বেসামরিক স্থাপনাতেও নির্বিচারে হামলা চালিয়ে যাচ্ছে। অন্তত ৩৩টি বেসামরিক স্থাপনায় হামলা চালিয়েছে রুশ বাহিনী।