চলতি বছর হজের নিষেধাজ্ঞা তুলে নিয়েছে সৌদি সরকার। তবে স্বাভাবিক সময়ে প্রতি বছর যে ২৫ লক্ষাধিক মুসলমান বিদেশ থেকে হজব্রত পালন করার সুযোগ পেতেন, তা অর্ধেকে নামিয়ে আনা হয়েছে। এ বছর ১০ লাখ মানুষ হজের অনুমতি পাচ্ছেন। এছাড়া সৌদি আরব থেকে দেড় লাখ মানুষ হজের অনুমতি পাবেন।

শনিবার (২৩ এপ্রিল) সৌদির হজ ও ওমরাহ মন্ত্রণালয় ঘোষণা দিয়েছে, দুই শর্তে হজে যেতে পারবেন বিভিন্ন দেশের হজপ্রত্যাশীরা। এতে বলা হয়েছে, হজযাত্রীদের বয়স ৬৫ বছরের নিচে হতে হবে এবং পূর্ণ ডোজ টিকা নেওয়া থাকা লাগবে। আর সৌদির উদ্দেশে রওনা হওয়ার ৭২ ঘণ্টার মধ্যে পিসিআর টেস্টের নেগেটিভ সনদ লাগবে।

সৌদি আরবের হজ ও ওমরাহ মন্ত্রণালয় প্রকাশিত হজ কোটা অনুযায়ী, বিশ্বের সর্ববৃহৎ মুসলিম দেশ ইন্দোনেশিয়া থেকে এ বছর সর্বোচ্চসংখ্যক মানুষ হজ করার সুযোগ পাবেন। ইন্দোনেশিয়ার ১ লাখ ৫১ জন হজে অংশ নিতে পারবেন। এরপরই দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৮১ হাজার ১৩২ জন হজ করতে পারবেন পাকিস্তান থেকে। তৃতীয় স্থানে থাকা ভারতের ৭৯ হাজার ২৩৭ জন হজের সুযোগ পাবেন। এছাড়া চতুর্থ স্থানে থাকা বাংলাদেশের ৫৭ হাজার ৫৮৫ জন হজ করতে পারবেন। ২৫ লাখ মানুষ হজের সুযোগ পাওয়ার সময় বাংলাদেশ থেকে সুযোগ পেয়েছিলেন ১ লাখ ২৭ হাজার ১৯৮ জন (২০২০ সালের হিসাব অনুযায়ী, যদিও করোনা ভাইরাসের কারণে কেউ যেতে পারেননি)। সে হিসাব অনুযায়ী এবার বাংলাদেশ থেকে হজে যেতে পারবেন আগের চেয়ে অর্ধেকেরও কম।

মহামারির কারণে দুই বছর বন্ধ রাখার পর বিদেশিদের জন্য হজের দুয়ার খোলা হলেও সংখ্যা কমিয়ে আনার ঘোষণায় শঙ্কায় পড়েছেন হজ পালনে নিবন্ধন করা দেশের আগ্রহী ব্যক্তিরা। এখনো সৌদি আরবের সঙ্গে এ বিষয়ে কোনো চুক্তি স্বাক্ষর হয়নি জানিয়ে সরকার বলছে, নিবন্ধন করা ব্যক্তিদের মধ্য থেকেই হজে যাওয়ার সুযোগ পাবেন। যারা সুযোগ পাবেন না, তারা পরের বছর যাবেন। সর্বশেষ নিবন্ধিত হজযাত্রীর সংখ্যা সরকারি ব্যবস্থাপনায় ২ হাজার ৬০৫ জন আর বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় ৫১ হাজার ৮৮২ জন অর্থাৎ মোট ৫৪ হাজার ৪৮৭ জন।

mokka

সিরিয়াল অনুযায়ী হজে যাওয়ার সুযোগ পাবেন প্রত্যাশীরা: হজ এজেন্সিজ অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (হাব) সভাপতি শাহাদাত হোসেন তসলিম বলেন, ‘যে সংখ্যক হজযাত্রী নিবন্ধন করে অপেক্ষায় আছেন, তাদের মধ্যে অনেকের বয়স ৬৫ বছরের বেশি। তাই এই বয়সের কারণে অনেকেই যেতে পারবেন না। ফলে নতুন নিবন্ধন থেকেও যাওয়ার সুযোগ রয়েছে।’

ধর্ম মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র জনসংযোগ কর্মকর্তা মুহাম্মদ আনোয়ার হোসাইন বলেন, ‘নিবন্ধন অটোমেশন করা। এখানে কারো কোনো হাত নেই, যার সিরিয়াল আগে তারাই আগে সুযোগ পাবেন। এই নিবন্ধনের সিরিয়াল থেকেই হজে যাবেন।’

হজের খরচ বাড়বে: ধর্ম প্রতিমন্ত্রী মো. ফরিদুল হক খান জানিয়েছেন, এ বছর হজ পালনে খরচ বাড়ার সম্ভাবনা আছে। মিনায় তিন দিন অবস্থানকালে আগে সবাইকে নিচে ঘুমাতে হতো। মানুষের কষ্টের কথা মাথায় রেখে এ বছর সৌদি সরকার খাটের ব্যবস্থা করেছে। আবার জ্বালানির দামের ঊর্ধ্বগতির জন্য বিমান ভাড়াও বেড়েছে। এসব কারণে খরচ বাড়তে পারে।