চুনারুঘাট (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধিঃ

চিমটিবিলখাস গ্রামে পুলিশের কাছ থেকে আসামী ছিনতাই করে সেই পুলিশদের একটি ঘরে তালাবদ্ধ রাখে আসামীপক্ষের লোকজন। বুধবার রাত প্রায় সাড়ে ১১ টার সময় ঘটনাটি ঘটে উপজেলার আহম্মদাবাদ ইউনিয়নের চিমটিবিল সীমান্তের চিমটিবিলখাস গ্রামে। খবর পেয়ে চুনারুঘাট থানার ওসি এম আশারাফ ও তদন্তকারী ওসি চম্পক দামসহ বিপুল সংখ্যখ পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ সদস্যদের আটকাবস্থা থেকে মুক্ত করে থানায় নিয়ে আসেন।


ওসি এম আশরাফ জানান, বুধবার রাতে দারোগা আতিকের নেতৃত্ব ৪ সদস্যের একটি দল চিমটিবিল গ্রামের মামদ আলীর পুত্র শিপনকে গ্রেপ্তার করতে মামদ আলীর বাড়িতে তল্লাশি পরিচালনা করে মাদক মামলার পলাতক আসামী শিপনকে আটক করে। পুলিশের উপস্থিতি দেখে মামদ আলী বাড়িতে ডাকাত পড়েছে বলে চিমটিবিল ক্যাম্পের বিজিবি জোয়ানদের ফোন দেয়। বিজিবি কয়েকজন সদস্য মামড় আলীর ঘরে উপস্থিত হয়। এরপর আটক শিপনের সাথে দারোগা আতিকের হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। এতে দারোগা আতিক ও মামদ আলী আহত হন। এক সময় দারোগাসহ চার পুলিশ সদস্যকে ঘরে তালাবদ্ধ করে রাখে মামদ আলী। খবর পেয়ে ওসি এম আশরাফ অতিরিক্ত ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে আহত পুলিশ সদস্যদের উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসেন। আহকদেরকে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।


ওসি এম আশরাফ বলেন, শিপন দাগী চোরাকারবারি। তার বিরোদ্ধে মাদকের মামলা রয়েছে। শিপন চিমটিবিল সীমান্তে দাগী তালিকাভুক্ত একজন চোরাকারবারী। পুলিশকে ঘরে তালাবদ্ধ করে রাখা ও আহত করার ব্যপারে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানান ওসি । মামদ আলী বলেন,তার ছেলে শিপন ঘরে ঘুমে ছিলো। রাত প্রায় ১১ টায় সাদা পোষাকধারী কিছু মানুষ তার ঘরে হানা দেয়। তিনি ডাকাত মনে করে শোর চিৎকার শুরু করেন। তার পুত্র শিপন বিজিবি’র সোর্স।
banner