banner

 বিশেষ প্রতিনিধি: 

এবার সাদ এরশাদকে নিয়ে টানাহেঁচড়ার চক্রান্ত !

জাতীয় পাটি (জাপা) র গৃহবিবাদ কোনভাবেই কাঁটছেনা। একটার পর একটা ইস্যু দলটির সামনে এসে হাজির হচ্ছে। এরিক এরশাদ ইস্যুর জের কাঁটতে না কাঁটতেই নতুনভাবে সাদ এরশাদ এমপির পিতৃ পরিচয় নিয়েও টানাহেচঁড়ার চক্রান্ত চলছে। আর এগুলো করা হচ্ছে জাতীয় পার্টির অভ্যন্তরে লুকিয়ে থাকা একটি চক্রের মাধ্যমে।

সম্প্রতি এরিক এরশাদ আনুষ্ঠানিকভাবে সংবাদ সম্মেলন করে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান জিএম কাদেরকে অভিযুক্ত করেছেন। সংবাদ সম্মেলনে এরিক ও তার মা বিদিশা এরশাদের কোন ক্ষতি হলে তার জন্য চাচা জিএম কাদের দায়ী থাকবেন বলে সাংবাদিকদের জানান। আর এজন্য এরিক এরশাদ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছেও এবিষয়ে নালিশ জানিয়েছেন।
জাপার একটি ঘনিষ্ট সূত্র জানায়, এরিক এরশাদের নামে নানা ষড়যন্ত্র করার পাশাপাশি সাদ এরশাদ এমপিকে নিয়ে গভীর চক্রান্ত চলছে। এরিকের বিষয়ে যে প্রশ্ন তোলা হয়েছে অনুরুপভাবে সাদ এরশাদের বিরুদ্ধেও একই অভিযোগ তোলা হতে পারে। ঐ সূত্রটি জানায়, ঘোলা পানিতে মাছ শিকার করার জন্যই এমনটি করা হচ্ছে। তবে এর মূলে এরশাদের রেখে যাওয়া সম্পত্তিই মূল কারণ। যদিও সাবেক রাষ্ট্রপতি এরশাদ মারা যাবার আগে তার সকল সম্পত্তি ট্রাষ্টের অনুকূলে দিয়ে যান। যা বর্তমানে হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ মেমোরিয়াল ট্রাষ্ট্রের মাধ্যমে পরিচালনা করা হচ্ছে। তবে এই ট্রাষ্টে বেগম রওশন এরশাদ, জিএম কাদের এবং সাদ এরশাদ কেউই নেই। যদিও এরিক এরশাদ বারবারই এবিষয়ে চাচা জিএম কাদেরকে অভিযুক্ত করে আসছেন। তবে এবিষয়ে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান জিএম কাদের নিশ্চুপ রয়েছেন।
এরশাদ মেমোরিয়াল ট্রাষ্টের এক কর্মকর্তা জানান, ট্রাষ্ট্রের সম্পত্তি আত্মসাৎ করার উদ্দেশ্যে এবং ট্রাষ্টকে বিতর্কিত করতে এরশাদ পরিবারের একজন নানাভাবে ঘোলা পানিতে মাছ শিকারের চেষ্টা করছেন। ট্রাষ্টের কর্মকর্তাদের নামে কুৎসা রচটানো এবং এরশাদ পুত্র এরিককে জীবননাশের নানান চেষ্টা করা হচ্ছে। ঐ চক্রটি সাদ এরশাদকেও বিতর্কিত করার নানান অপচেষ্টা করছে বলে নানা মারফত জানতে পারছি।

banner