মোঃ আব্দুল হান্নান, ক্রাইম রিপোর্টার, সিলেট

যৌতুকের দাবী পূরণ করতে না পারায় স্ত্রীকে গৃহে তালাবদ্ধ, শারীরিক প্রহার, মানসিক নির্যাতনের পর এবার ২য় বিবাহ করল চুনারুঘাট উপজেলার গেরারুক গ্রামের ফারুক মিয়ার পুত্র আতিকুর রহমান জাবেদ (২৮)। জানা যায়, ৬ বছর আগে সামাজিক ভাবে জাবেদের সাথে বিয়ে হয় উপজেলার কালিশিরী গ্রামের হাসিম মিয়ার কন্যা রোমা আক্তারের সাথে। এক ছেলে ও এক মেয়ের জন্ম দেন তারা। এর মাঝে প্রায়ই বাবার বাড়ি থেকে টাকা পয়সা আনতে হতো রোমাকে।

না হলে মারপিট সহ নানান নির্যাতনের শিকার হতে হতো তাকে। গত এক বছর ধরে রোমার বাবা টাকা পয়সা দেওয়া বন্ধ করে দেন। তখন জাবেদ এক কালীন দুই লক্ষ টাকার জন্য রোমাকে চাপ দেয়। রোমা তাতে রাজী না হলে তাকে মারধর করে ঘরে তালাবদ্ধ করে রাখে। খবর পেয়ে রোমার বাবা এসে এলাকার মুরুব্বীদের সহযোগিতায় রোমাকে উদ্ধার করে চুনারুঘাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা করিয়ে বাড়িতে নিয়ে যান। এ নিয়ে একাধিক সালিশ বৈঠক হয়। জাবেদ টাকা ছাড়া স্ত্রী-সন্তানদের বাড়িতে নিতে অসম্মতি জানায়। রোমার বাবা বাদী হয়ে আদালতে মামলা করেন।

এরই মাঝে জাবেদ একই উপজেলার বসন্তপুর গ্রামের কালা মিয়ার কন্যা শারমিন আক্তারকে বিয়ে করে নতুন সংসার করেছে। দুই সন্তানকে নিয়ে অসহায় ভাবে দরিদ্র পিতার বাড়িতে অভাব অনটনে দিন কাটাচ্ছে রোমা। এ ব্যাপারে গেরারুক গ্রামের একাধিক মুরুব্বিদের কাছে জানতে চাইলে তারা বলেন, জাবেদ ও তার পরিবার সামাজিক সালিশ বিচার মানেনা। আমরা অনেক চেষ্টা করেছি সংসারটি রক্ষা করার। জাবেদের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, রোমা ব্যাংকের লোনের টাকা নিয়ে তার বাবার বাড়িতে চলে গেছে। জাবেদের ২য় স্ত্রী শারমিন জানান, ঢাকায় তাদের বিয়ে হয়েছে। বিষয়ে, রোমা আক্তার বাদী হয়ে আদালতে মামলা করেছেন।

banner