সঠিক জাকাত ব্যবস্থাপনায় কাটবে সংকট

0
56

আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম আলজাজিরা অ্যারাবিকের বিশেষ অনুষ্ঠান ‘জীবন ও শরিয়ত’। গত ৮ মে (১২ রমজান) তাতে জাকাত বিষয়ে আলোচনা করেন কাতার বিশ্ববিদ্যালয়ের শরিয়াহ ও ইসলামিক স্টাডিজ অনুষদের অধ্যাপক ও ইসলামী অর্থনীতিবিদ ড. আলী কারাহ দাগি। তিনি সমকালীন সংকট মোকাবেলায় জাকাতের নানামুখী কার্যকারিতার কথা সেখানে তুলে ধরেন। আলোচনার বিশেষ অংশ বাংলায় ভাষান্তর করেছেন মুহাম্মাদ হেদায়াতুল্লাহ

জাকাতের উদ্দেশ্য : আল্লাহ তাআলা প্রধানত দুটি কারণে মুসলিমদের জন্য জাকাত আবশ্যক করেছেন। প্রথমত, ধনীর মন-মস্তিষ্ক ও চিন্তা-ভাবনাকে লোভ-লালসা থেকে পবিত্র করা এবং দরিদ্র ব্যক্তির মনকে হিংসা-বৃিক্কষ থেকে পবিত্র করা। দ্বিতীয়ত, অর্থনৈতিক উন্নয়নের মাধ্যমে সম্পদের প্রবৃদ্ধি করা। আল্লাহ তাআলা ইরশাদ করেছেন, ‘আপনি তাদের সম্পদ থেকে সদকা গ্রহণ করুন, যার দ্বারা আপনি তাদেরকে পবিত্র করবেন এবং পরিশোধিত করবেন।’ (সুরা : তওবা, আয়াত : ১০৩)

আয়াতের মধ্যে ‘তাজকিয়া’ বা পরিশোধন দ্বারা বাহ্যিক অর্থনৈতিক উন্নতি উদ্দেশ্য। দরিদ্র ব্যক্তিকে জাকাতের মাধ্যমে নিঃস্ব অবস্থা থেকে স্বাবলম্বী করা হবে। অতঃপর তাকে ধীরে ধীরে পরিপূর্ণ সচ্ছল অবস্থার দিকে নিয়ে যাওয়া হবে। এটাই জাকাতের প্রধানতম উদ্দেশ্য।

দারিদ্র্য বিমোচনে প্রয়োজন জাকাতের সঠিক ব্যবহার : জাকাতের সঠিক ব্যবহার সমাজকে কিভাবে বদলে দিতে পারে তার দৃষ্টান্ত স্থাপন করেন ওমর বিন আবদুল আজিজ (রহ.)। তিনি মাত্র দুই বছর ছয় মাস ১৭ দিনের খিলাফতকালে সমাজের অতি নিঃস্ব-দরিদ্র ও অক্ষম ব্যক্তিদের প্রয়োজনীয় আর্থিক সামর্থ্য তৈরিতে সক্ষম হন। আর পুরো সমাজ অভাবমুক্ত হয়। তিনি কর্মক্ষম ব্যক্তিকে মূলধন ও উৎপাদন যন্ত্র দিয়ে সহযোগিতা করেন, যেন তাদের অভাবমোচন হয়। সমকালীন আলেম ইয়াহইয়া (রহ.) বর্ণনা করেছেন, ‘আমি আফ্রিকায় গিয়ে কোনো অভাবীকে খুঁজে পাইনি।’ ওমর বিন আবদুল আজিজ (রহ.)-এর কাছে তিনি পত্রযোগে জানান, এখানে কোনো অভাবী নেই। তখন খলিফা ওমর বিন আবদুল আজিজ (রহ.) জাকাতের অর্থ দাস মুক্তকরণ ও তরুণ-তরুণীদের বিয়ের ব্যয়ের নির্দেশ দেন।

জাকাত ব্যবস্থাপনায় প্রয়োজন স্বতন্ত্র প্রতিষ্ঠানের : ২০১৭ সালে পরিসংখ্যান করে দেখেছি, মুসলিমদের মোট জাকাতের পরিমাণ প্রায় ৩০০ থেকে ৪০০ বিলিয়ন ডলার। দারিদ্র্য বিমোচনের জন্য এই পরিমাণ অর্থ মোটেই কম নয়। তবে তার জন্য প্রয়োজন জাকাত সংগ্রহ ও বিতরণে সমন্বিত ব্যবস্থা। কোরআনের একটি আয়াত যার প্রতি ইঙ্গিত করে। আল্লাহ বলেন, ‘এবং জাকাত সংগ্রহের কর্মচারীদের জন্য।’ (সুরা : তওবা, আয়াত : ৬০)। এখানে কর্মচারী দ্বারা জাকাত সংগ্রহ-সরবরাহের প্রতিষ্ঠানের কর্মচারী উদ্দেশ্য।

সংকট নিরসনে জাকাত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারে : গবেষকরা বলছেন, চলতি বছর সদকার সর্বনিম্ন পরিমাণ প্রায় দুই ডলার বা তার চেয়ে একটু বেশি। প্রাতিষ্ঠানিকভাবে তা সংগ্রহ করলে মোট পরিমাণ দাঁড়ায় চার মিলিয়ন ডলার। এই বিপুল অর্থ সঠিক ব্যবস্থাপনার মাধ্যমে ব্যয় হলে চলমান সংকট নিরসনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারে। রাসুল (সা.) সদকা ফরজ করেছেন যেন তা রোজাদারকে অনর্থক ও অশ্লীল কাজ থেকে পবিত্র করে এবং দরিদ্রের অন্ন জোগান দেয়।’ (সুনানে আবু দাউদ, হাদিস : ১৬০৯)

জাকাতের সমন্বিত ব্যবস্থা না থাকার সমস্যা : সাধারণ মুসলিমদের অনেকেই জাকাত সম্পর্কে পরিপূর্ণ জ্ঞান রাখে না এবং জাকাত আদায়ের ব্যাপারেও তাদের কোনো আগ্রহ নেই। বহু ধনী ও সামর্থ্যবান ব্যক্তি জানে তার ওপর জাকাত ফরজ। অথচ সে মিলিয়ন ডলারের মালিক। আর একজন সাধারণ লোকের পাঁচটি উট থাকলে আল্লাহ তাআলা একটি ছাগল জাকাত হিসেবে আবশ্যক করেছেন। আর ৪০টি ছাগল হলে একটি দেওয়া আবশ্যক। (সহিহ বুখারি, হাদিস : ১৩৮৬)

করোনা মহামারির আগে জাতিসংঘের হিসাব মতে মুসলিমবিশ্বে ৯৫০ মিলিয়ন দারিদ্র্যপীড়িত লোক আছে। বৈশ্বিক মহামারির পর অবশ্যই এ সংখ্যা আরো বাড়বে। তাই মানুষের মধ্যে অর্থ-সম্পদের সুষ্ঠু বণ্টনের নীতিমালা না থাকলে অনেক বড় বড় সংকট দেখা দেবে।

জাকাতের অর্থে নির্মাণকাজ : জাকাতের জন্য সুসংগঠিত প্রতিষ্ঠানের প্রয়োজন। যথাযথ জাকাত সংগ্রহ করে তা উপযুক্ত খাতে ব্যয়ের নিশ্চয়তা থাকা আবশ্যক। এতে কোনো সন্দেহের অবকাশ থাকতে পারবে না। তাই হাসপাতাল, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বা দরিদ্রদের জন্য সুনির্দিষ্ট খাত নিশ্চিত করে এবং সুনির্দিষ্ট পদ্ধতি (তামলিক) অবলম্বন করে এর পেছনে জাকাত ব্যয় করা যাবে। এসব প্রতিষ্ঠান পরিচালনায় এক দল একনিষ্ঠ দ্বিনদার শরয়ি বিশেষজ্ঞ ব্যক্তি নিযুক্ত থাকা আবশ্যক, যাঁরা লেনদেনের শরয়ি বিষয় দেখাশোনা করবেন।

মন্তব্য করুন

আপনার মতামত লিখুন
Please enter your name here