banner

স্থানীয় যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগসহ ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের আপত্তির কারণে সিরাজগঞ্জে বাতিল করা হয়েছে  খেলাফত মজলিসের মহাসচিব ও হেফাজতে ইসলামের যুগ্ম মহাসচিব মামুনুল হকের ওয়াজ মাহফিল।

আগামী ১৭ ডিসেম্বর সিরাজগঞ্জের বেলকুচি উপজেলার জামতৈল এলাকায় ওয়াজ মাহফিলে বক্তব‌্য দেওয়ার কথা ছিল মামুনুলের। ওয়াজ মাহফিলটির আয়োজক ছিল জামতৈল দারুল উলুম কওমিয়া হাফিজিয়া মাদরাসা।

আয়োজক মাদরাসার শিক্ষাসচিব মোহাম্মদ জাকারিয়া বলেন, ‌’মামুনুল হক সাহেবের ওয়াজ মাহফিলটি ক্যানসেল হয়ে গেছে। উনি সিরাজগঞ্জে আসছেন না।’

স্বেচ্ছাসেবক লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির গ্রন্থনা ও প্রকাশনা সম্পাদক মনোয়ারুল ইসলাম বিপুল কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘সিরাজগঞ্জের সন্তান হিসেবে আমি মনে করেছি, আমাদের জেলায় মামুনুল হকের মতো উগ্র সাম্প্রদায়িক ব্যক্তির মাহফিল হতে পারে না। স্বেচ্ছাসেবক লীগের কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের সঙ্গে আলোচনার পর আমরা সিরাজগঞ্জ জেলা ও বেলকুচি উপজেলা কমিটিকে মামুনুল হকের বিরুদ্ধে কর্মসূচি দেওয়ার পরামর্শ দিই। আগামী শনিবার আমাদের মানববন্ধন ও সমাবেশ কর্মসূচি হওয়ার কথা ছিল। এরই মধ্যে আজ ওয়াজ মাহফিলের আয়োজকরা মামুনুল হককে মাহফিলে আসার জন্য নিষেধ করে দিয়েছেন।’

সিরাজগঞ্জ জেলা যুবলীগ সভাপতি রাশেদ ইউসুফ জুয়েল বলেন, ‘আমরা আয়োজক কমিটির সঙ্গে কথা বলেছি। যে ব্যক্তি বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য বুড়িগঙ্গায় ফেলে দিতে চান, তাঁকে সিরাজগঞ্জে মাহফিল করতে দেওয়া হবে না বলে আয়োজকদের জানিয়েছি। তাঁরা পরিস্থিতি বুঝে তাঁদের সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করেছেন।’

বেলকুচি উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক কামাল আহমেদ কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘আমরা সকালে স্বেচ্ছাসেবক লীগের নেতাকর্মীরা মাদ্রাসা কমিটির সঙ্গে বসেছিলাম। মামুনুল হকের বিরুদ্ধে আমাদের তীব্র আপত্তির কথা তাঁদেরকে জানিয়েছি। মাদ্রাসা পরিচালনা কমিটির সভাপতি আমাদের সামনেই মামুনুল হককে কল দিয়ে মাহফিলে আসতে নিষেধ করেছেন।’  

banner